৫ লক্ষ OBC সার্টিফিকেট বাতিলের প্রভাব, রাজ্যে বন্ধ WBCS নিয়োগ? বাড়ছে জটিলতা

Editor Desk

Follow
Whatsapp Channel

OBC Certificates: গতমাসে কলকাতার হাইকোর্টের একটি রায়ে বাতিল হয়েছে রাজ্যের পাঁচ লক্ষের কাছাকাছি ওবিসি সার্টিফিকেট। যাদের ওবিসি সার্টিফিকেট ২০১০ সালের পর ইস্যু করা সেই সকল সার্টিফিকেট বাতিল করার রায় দিয়েছে হাইকোর্ট। আর এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়েই সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার প্রস্তুতি শুরু করেছে রাজ্য।

OBC Certificate বাতিলে সমস্যায় পড়ুয়ারা

হাইকোর্টের অর্ডার আর রাজ্য সরকারের বিরোধিতা এই অস্থির অবস্থার মধ্যে সবথেকে বেশি সমস্যা এর মধ্যে পড়েছেন পড়ুয়া ও চাকরিপ্রার্থীরা। ওবিসি সার্টিফিকেট বাতিল নাকি বাতিল হবে না এই নিয়ে রাজ্য জুড়ে এখন তৈরি হচ্ছে নানা জট। আদালতের এই নির্দেশের পর রাজ্যের কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিতে অনিশ্চয়তার মেঘ দেখা দিচ্ছে। ‌কোন শংসাপত্রের ভিত্তিতে এবার ওবিসি কোটায় ভর্তি হবেন পড়ুয়ারা! আদৌও আর ওবিসি সার্টিফিকেট ব্যবহার করা যাবে! প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে ছাত্র-ছাত্রীদের। অপরদিকে এর উত্তর দিতে পারছেন না বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি এবার এই জট নিয়েই মুখ খুললেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

জট নিয়ে মুখ খুললেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু

কিছু মাস আগেই শেষ হয়েছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা, ইতিমধ্যে তার রেজাল্টও সামনে এসেছে। আর কয়েকদিন পরেই কলেজ সহ বিশ্ববিদ্যালয় ও অন্যান্য জায়গায় ভর্তির প্রক্রিয়ায় শুরু হয়ে যাবে। কিন্তু এই ভর্তির প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার মুখে থাকলেও ওবিসি প্রার্থীরা কোথায় কোন শংসাপত্র দেখিয়ে ভর্তি হবেন তা নিয়ে দ্বন্দ্ব থেকেই যাচ্ছিল।

শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু এই বিষয়ে বলেন “আমাদের পোর্টালে এটা জানিয়ে দেওয়া হবে, দু একদিনের মধ্যেই জানানো হবে। আর আমাদের মুখ্যমন্ত্রী পরিষ্কার বলেছেন এই রাই আমরা মানি না আমরা উচ্চতর আদালতে যাব।” তাই এই বিষয়ে যে খুব শীঘ্রই একটি আপডেট আছে চলেছে তা আশা করা যাচ্ছে।

একইভাবে ওবিসি সংরক্ষণ নিয়ে দ্বন্ধে বন্ধ ডব্লিউবিসিএস পরীক্ষা। ‌ যে কোন নিয়োগের ক্ষেত্রে হান্ড্রেড পয়েন্ট রস্টার ঠিক হয়। ‌ তাতে মোট শূন্য পদের নিরিখে সাধারণ তপশিলি জাতি, ওবিসি সংরক্ষণ অনুযায়ী পদ নির্ধারিত থাকে। ওবিসি সংক্রান্ত জাল না কাটলে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা সম্ভব হচ্ছে না।

About Author

Leave a Comment