লক্ষীর ভান্ডারের টাকা এই কাজেও ব্যবহার করা যায়! দেখিয়ে দিলেন মহিলারা

Editor Desk

Follow
Whatsapp Channel

Lakshmir Bhandar: একুশের ভোটের আগে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী নারী ক্ষমতায়নে যা ছিল তৃণমূলের সরকারের বড়ো পদক্ষেপ।‌ নারীদের আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করতে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছিল। ‌ এই প্রকল্পের আসল উদ্দেশ্য হলো নারীদের হাতে অর্থায়নের মাধ্যমে প্রতিটি পরিবারকে আয়ের ব্যবস্থা করা। আর এবার এই লক্ষীর ভান্ডারের টাকা জমিয়ে অভিনব উদ্যোগ নিল মহিলারা!

লক্ষী ভান্ডারের টাকায় সংকীর্তন!

হরিনাম সংকীর্তন এর আসর বসিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন ঝালদা আনন্দবাজার বৈষ্ণব পাড়ার মহিলা সমিতির মহিলারা। মঙ্গলবার থেকেই শুরু হয়েছিল কীর্তন, শুক্রবার ছিল জাগরণ আর পরের দিন ধুলট। এই শহরের পাশাপাশি আশেপাশের গ্রামগুলি থেকেও গভীর রাত পর্যন্ত প্রচুর লোকজন এই হরি মন্দির এ এসেছেন হরিনাম সংকীর্তন দেখতে। ‌বাইরে থেকেও এসেছেন প্রচুর লোক।

সমিতির পক্ষ থেকে সোমা বৈষ্ণব ও সংগীত নাগ জানান তারা লক্ষ্মীর ভান্ডারে টাকা জমিয়ে রেখে তা সংকীর্তনের আসরে খরচ করেছেন। এছাড়াও পাড়ার সকলে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।
তাদের উদ্দেশ্য যাতে নবীন প্রজন্ম নাম সংকীর্তন বা সনাতন ধর্ম না ভুলে যাই।

লক্ষীর ভান্ডার এর মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ সরকার অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবারের মহিলাদের প্রতিমাসে আর্থিক সহায়তা একটি প্রকল্প শুরু করেছে‌।‌ প্রকল্পের উদ্দেশ্য প্রতিটি পরিবারে আর্থিক সংস্থান তৈরি করা। তবে এই টাকা থেকে এই মহিলারা যেভাবে নয়া উদ্যেগ নিয়েছেন তাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকার বাসিন্দারা। এর মাধ্যমে সনাতন ধর্ম সম্পর্কে এই প্রজন্মও আগ্রহী হবে বলেই আশা সকলের।

About Author

Leave a Comment